খেলাধুলা

নরকিয়া বনাম মুস্তাফিজ – Nortje vs Mustafiz

২০২২ আইপিএল আসরে দিল্লি ক্যাপিটালস এর হয়ে খেলেছেন মুস্তাফিজুর রহমান ও এনরিক নোকিয়া। একই দলে এবারের আসরে খেলেছেন ২ পেসার।

দিল্লি ক্যাপিটালস এর হয়ে প্রথম ম্যাচে একাদশে ছিলেন না মুস্তাফিজুর রহমান।এরপর টানা ৮ ম্যাচে দিল্লির একাদশে ছিলেন মুস্তাফিজ। অন্যদিকে এনরিক নোকিয়া প্রথমবার সুযোগ পেয়ে ভালো না করায় বাদ পড়ে গিয়েছিল। এরপর সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচে দিল্লির একাদশে ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার এই ক্রিকেটার।

এখন পর্যন্ত দিল্লি ক্যাপিটালস হয়ে মুস্তাফিজুর রহমান খেলেছেন ৮ ম্যাচ। পক্ষান্তরে এনরিক নোকিয়া খেলেছেন ৬ ম্যাচ।৬ ম্যাচ খেলে নোকিয়া ৯ উইকেট নিয়েছেন অন্যদিকে মুস্তাফিজ ৮ ম্যাচ খেলে ৮ উইকেট নিয়েছেন।মুস্তাফিজুর রহমান এর চাইতে বেশি উইকেট পেলে ও এনরিক নোকিয়ার ইকোনমি রেট অনেক বেশি। যেখানে মুস্তাফিজুর রহমান ৩২ ওভার বোলিং করেছেন ৭.৬৩ রিকনমি রেট রেখে। অন্যদিকে এনরিক নোকিয়ার বোলিং ইকোনমি রেট ৯.৭২।

পরিসংখ্যান বলে যখন এমন কথা! তখন এনরিক নোকিয়া নয়, মুস্তাফিজুর রহমানই সেরা।দিল্লি ক্যাপিটালস এর সবথেকে খরচে বোলার হচ্ছেন এনরিক নোকিয়া। অন্যদিকে মুস্তাফিজের ক্ষেত্রে ঘটেছে এর উল্টোটা। যেখানে দিল্লি ক্যাপিটালস সবথেকে ইকনোমিক্যাল বোলার কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান।

এবারের আইপিএলে মুস্তাফিজুর রহমান দুই ম্যাচে তিনটি করে ৬ টি উইকেট নিয়েছিলেন। আর বাকি চার ম্যাচে দুই উইকেট নিয়েছেন। মুস্তাফিজুর রহমানের বেস্ট বোলিং ফিগার ১৮ রান দিয়ে তিনটি উইকেট। পক্ষান্তরে এনরিক নোকিয়া ২০২২ আইপিএলে ৬ ম্যাচে ৯ উইকেট নিয়েছেন। এনরিক নোকিয়ার বেস্ট বোলিং ফিগার ৪২ রান দিয়ে তিনটি উইকেট।

উল্লেখ্য, ২০২২ আইপিএলে মুস্তাফিজুর রহমান কে ২ কোটি ভিত্তিমূল্য দিয়ে দলে নিয়েছে দিল্লি ক্যাপিটালস। আর এনরিক নোকিয়া কে সাড়ে ৬ কোটি রুপি দিয়ে দলে নিয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.