অনলাইন ইনকাম

এসইও কি ? Seo শিখে অনলাইনে আয় করার উপায়

এসইও কি ? SEO Tutorial For Beginners 

আসসালামুআলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ । আশা করি সবাই ভালো আছেন । বাংলা পরামর্শ  ব্লগে আপনাকে স্বাগতম । আজকে আমরা আলোচনা করবো সার্চ  ্ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন ( এস ই ও ) নিয়ে ।

আমরা জানবো এসইও কি ? এসইও কত প্রকার ? Seo কিভাবে করতে হয় । এসইও শিখে কিভাবে অনলাইনে থেকে ইনকাম করা যায় । মোট কথা Seo নিয়ে আজকে আমি একটি পূর্না্ঙ্গ গাইডলাইন দেবার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ ।

এসইও কি ?

Seo এর পূর্ণরুপ হলো = সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন । এসইও বুঝতে হলে আগে তাহলে বুঝতে হবে সার্চ ইঞ্জিন কি ? সার্চ ইঞ্জিন হলো, যেখানে  আমরা বিভিন্ন ‍কিছু সার্চ করি । যেমন গুগল , বিংগ, ডাগডাগগো, বাইদু, ইয়াহু ইত্যাদি ।

একটা উদাহরণ দিলে ব্যাপারটা বুঝতে সহজ হবে । ধরুন আপনার একটি মধু বিক্রির ওয়েবসাইট আছে ।

এখন আপনি চাচ্ছেন কেউ যদি মধু লিখে গুগলে সার্চ করে তবে আপনার সাইটটি যেন আগে দেখায় ।

কারন আমরা যখন গুগলে কোন কিছু সার্চ করি ।তখন গুগলের প্রথম পাতায় যে সাইটগুলার লিংক পাই সেগুলোতেই ক্লিক করি ।

এখন প্রশ্ন হলো গুগল কেন আপনার সাইটকে প্রথম পজিশনে রাখবে ?

অনলাইনে তো মধু বিক্রির হাজার হাজার ওয়েব সাইট আছে । সেগুলোকে কেন প্রথমে না রেখে আপনার ওয়েবসাইটকে প্রথম প্রজিশন দেবে ?

এর প্রধান কারন হলো এসইও ( Seo )  । অনলাইনে হাজার হাজার মধু বিক্রির ওয়েব সাইট থাকা সত্তেও আপনার সাইটকে গুগল প্রথম পজিশনে রাখছে কারন , আপনি গুগল কে বোঝাতে পেরেছেন যে আপনার ওয়েব সাইটটি মধু নিয়ে কাজ করে ।

আপনার ওয়েব সাইটে মধু নিয়ে নিয়মিত আলাপ আলোচনা চলে । মোটকথা আপনি গুগলকে ভালোভাবে অপটিমাইজ করেছেন মধু কিওয়ার্ড এর জন্য ।

অনলাইনে হাজার হাজার মধু বিক্রির ওয়বে সাইট থাকলেও তারা ভালোভাবে সার্চ ইঞ্জিন  কে বোঝাতে পারে ন ।

যে তারা কোন টপিক নিয়ে কাজ করছে । যে যতটুকু বোঝাতে পরি বিষয়টি সে ততো ভালে পজিশনে থাকে ।

গুগল ততক্ষন আপনার ওয়েব সাইটকে টপ পজিশনে দিবে না যতক্ষন গুগল আপনার ওয়েব সাইটের মুল বিষয়বস্তু বুঝবেনা

এই বোঝাবোঝির সঠিক কাজটি ভাবে করার একমাত্র উপায় হেলো এসইও । যখন আপনার ওয়েবসাইটকে সঠিকভাবে সার্চ ইঞ্জিনের জন্য অপটিমাইজ করবেন । তখন আপনার সাইটকে সার্চ রেজাল্টের প্রথমে দেখাবে ।

এসইও কি এতক্ষনে আশা করি বুঝতে পেরেছেন । এরপরও যদি না বোঝেন তবে উপরের লেখাগুলো আবার ।

কয়েকবার মনোযোগ সহকারে পড়ৃন ।আশা করি বুঝতে পারবেন ।এরপরও না বুঝতে আমাকে কমেন্ট করে জানান ।

এসইও কত প্রকারঃ 

এসইও করার ধরনা অনুযায়ী এস্ইও দুই প্রকার ।

১। হোয়াইট হ্যাট এসইও

২। ব্লাক হ্যাট এসইও

হোয়াইট হ্যাট এসইও কি?

সার্চ ইঞ্জিনের সকল নিয়ম কানুন মেনে যে ধরনের এসইও করা হয় তাকে হোয়াইট হ্যাট এসইও বলে। এই এসইও ওয়েবসাইটের জন্য নিরাপদ  এবং স্থায়ী

ব্লাক হ্যাট এসইও কি ?

ব্লাক হ্যাট এসইও হোয়াইট হ্যাট এসইও এর বিপরিত । এখানে সার্চ  ইঞ্জিনের কোন নিয়মনিতি মানা হয় না। বরং এখানে সার্চ ইঞ্জিনকে বোকা বানিয়ে প্রথম পজিশনে আসার চেষ্টা করা হয় ।

এই ধরনের এসইও একদম অনিরাপদ এবং ওয়েব সাইটের জন্য মারাত্বক ক্ষতিকর । যেকোন সময় ওয়েব সাইট পেলান্ডি খেতে পারে । তখন আর কোনভাবেই পেলান্টি খাওয়া সাইট আর Rank করতে পারবে না ।

অন্যভাবে বলতে গেলে এসইও দুই প্রকারঃ

১। অর্গানিক এসইও

২। পেইড এসইও

অর্গানিক এসইও কি ?

অর্গানিক এসইও হলো ,যে ধরনের এসইও করতে সার্চ ইঞ্জিনকে কোন টাকা পয়সা দতে হয় না তাকে অর্গানিক এসইও বলে । এই ধরনের এসইও সার্চ ইঞ্জিনের এলগোরিদম মেনে করা হয় ।

পেইড এসইও কি ?

সার্চ ইঞ্জিনকে টাকা দিয়ে প্রথম পজিশনে যাওয়ার পদ্ধতিকে পেইড এসইও বলে ।

অনেকসময় দেখবেন গুগলে কোন কিছু সার্চ করলে একদম প্রথমে কিছু সাইট থাকে যেটার সাথে হলুদ কালরের AD লেখা থাকে ।

এ্গুলা মুলত পেইড এসইওর কারনে হয় ।

এসইওর মৌলিক কাজ তিন প্রকারঃ

১। টেকনিক্যাল এসইও

২। অনপেজ এসইও

৩। অফপেজ এসইও

টেকনিক্যাল এসইও কি ?

টেকনিক্যাল এসইও হচ্ছে এমন একটি প্রক্রিয়া যেটা সাইট কে RANK করাতে সাহায্য করে ।

সাইটের ট্রাকচার, সাইটের কালার, সাইটের ফন্ট থেকে শুরু করে একটি ওয়েবসাইটের টেকনিক্যাল বিষয়গুলি সঠিক রাখাই টেনিক্যাল এসইওর অন্তরভুক্ত ।

টেকনিক্যাল এসইও চেকলিষ্টঃ

  •  ওয়েব সাইট স্ট্রাকচার এবং ডিজাইন
  •  রোবট টেক্সট ফাইল
  • মোবাইল ফ্রেন্ডলি ডিজাইন
  • ব্রোকেন লিংক
  • ৪০৪ পেজ
  • থিন কনটেন্ট
  • SSL সার্টিফিকেট যুক্ত করা
  • পেজ লোডিং স্পীড
  • গুগুল এনালাইটিকস
  • Crawl এরোর পেজ

অনপেজ এসইও কি?

অনপেজ এসইও হলো ওয়েবসাইটের ভিতরে থেকে করতে হয় ।

যেমন কোন একটা টপিকে একটি আর্টিকেল লিখে সেই আর্টিকেলটিতে এসইওর বিভিন্ন বিষয় প্রয়োগ করাকে অনপেজ এসইও বলে ।

অনপেজ এসইও করতে হলে আপনাকে  যে কাজ গুলো করতে হবে । 

  1. টাইটেল অপটিমাইজ
  2. মেটা ট্যাগ
  3. মেটা ডেসক্রিপসন
  4. এসইও ফ্রেন্ডলি কনটেড
  5. কন্টেন্টে ফোকাস  কিওয়ার্ড অপটিমাইজ
  6. কন্টেন্ট লেন্থ
  7. ইমেজ অপটিমাইজ
  8. ক্যাটাগরি ইত্যাদি

অনপেজ এসইওর গুরুত্বঃ

একটি সাইটকে  সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পজিশনে নিয়ে যাওয়ার পিছনে অনপেজ এসইওর গুরুত্ব অনেক । অনপেজ এসইও ঠিক থাকলে অনেক সময় দেখা যায় শুধু অনপেজ এসইওর কারনেই সাইট প্রথম পজিশনে চলে গেছে ।

অফপেজ এসইও কিঃ

আপনি যখন আপনার ওয়েব সাইটকে বাইরে থেকে অপটিমাইজ করবেন তখন সেই অপটিমাইজেসন কে অফপেজ এসইও বলে । অফপেজ এসইও ভালোভাবে করতে পারলে সহজেই সাইট RANK করে ।

অফপেজ এসইও টেকনিকঃ

  • ব্যাকলিংক তৈরী
  • সোস্যাল শেয়ার
  • লোকাল বিসনেস

একটি উদাহরণ দিয়ে অনপেজ এসইও অফপেজ এসইও ও টেকনিক্যাল এসইও বুঝিয়ে দিলে কেমন হয় ? খুব ভালো তাই না ?তো চলুন গল্পে গল্পে জেনে নেই অফপেজ অনপেজ এসইও ।

অনপেজ, অফপেজ, টেকনিক্যাল এসইও এর গুরুত্ব

আপনি যখন বিয়ে করতে যাবেন । তখন কিন্তু আপনি পাত্রী কে না দেখেই বিয়ে করবেন না তাই না ?

শুধু কি পাত্রি দেখবেন ? শুধু পাত্রীর চেহেরা দেখেই কি বিয়ে করবেন? অবশ্যই না । পাত্রী দেখার সাথে সাথে পাত্রীর পরিবার দেখবেন বাড়ি ঘর দেখবেন বংশ মর্যাদা দেখা থেকে শুরু করে এ টু জেড সব খোজখবর নিয়েই এরপর বিবাহ করা সিধান্ত নেবেন ।

ঠিক তেমনি গুগল যখন কোন পোষ্ট বা কন্টেন্ট কে তার প্রথম পেজে Rank দেয় তখন গুগল সেই কন্টেন্টের এ টু জেড সকল খবরাখবর নিয়েই দেয় ।

আপনি যেমন পাত্রীর ঘরবাড়ির দেখেন ,, ঘরবাড়ি পরিপাটি আছে কিনা ? বাড়িতে যাবার রাস্তাটা সহজ কিনা । রাস্তায় কোন কাদা পানি আছে কিনা ।

বাড়িতে টয়লেট, গোসলখানা ঠিকঠাক আছে কিনা ? এসব কিছু খুটিয়ে খুটিয়ে দেখার পর কিন্তু পরবর্তী সিধান্ধ নেন ।

ঠিক তেমনি গুগল যখন কোন পোষ্ট কে প্রথম পজিশনে নিয়ে আসে তখন গুগল সেই ওয়েব সাইটের ডিজাইন দেখে । ডিজাইনটা ইউজার ফ্রেন্ডলি কিনা । সাইটের লেআউটটা দেখতে কেমেন ?

সহজেই ইউজার কোন কিছু খুজে পাচ্ছে কিনা । এই যে বিষয়গুলা, এগুলা হলো সাইটের টেকনিক্যাল এসইওর অর্ন্তভুক্ত ।

পড়ুন – গুগল এডসেন্স অনলাইনে ইনকাম করার সহজ উপায় 

পাত্রীর বাড়ি ঘর ‍পছন্দ না হলে যেমন আপনি বিয়ে করবেন না । ঠিক তেমনি টেকনিক্যাল এসইও ঠিক না থাকলে গুগল আপনাকে Rank দিতে চাইবে না ।

পাত্রীর বাড়ি ঘর তো্ দেখলেন , এখনি কি বিয়ের সিধান্ত নিয়েছেন ? নাকি এখন পাত্রীর চেহারা দেখবেন , পাত্রীর পড়ালেখা যোগ্যতা এসব দেখবেন এরপর তো বিয়ের চিন্তা করবেন তাই না ?

গুগলও তেমনি শুধু টেকনিক্যাল এসইও ঠিক থাকলেই আর কিছু না দেখে আপনাকে Rank দেবে না । গুগল এ পর্যায়ে আপনার কন্টেন্ট এর চেহারা দেখবে । কন্টেন্ট পর্যালোচনা্ করবে । কতটা তথ্যবহুল আপনি লিখেছেন । আর এটাকেই বলে অনপেজ এসইও ।

সব কিছু যদি গুগলের কাছে পছন্দ হয় এরপর সে পরবর্তী  ধাপে আগাবে ।

আপনারা পড়ছেন এসইও কি ?

যেমনটি আপনি মেয়ে পছন্দ হয়েছে ওমনি বিয়ে না করে , এরপর মেয়ের বাড়ির আশেপাশে মেয়ে সমন্ধে খোজ খবর নিতে থাকবেন ।

মেয়ের চরিত্র কেমন ? বয়ফ্রেন্ড আছে কিনা ? মেয়ের আচার ব্যাবহার কেমন । এসব কিছু যদি ভালো হয় তখন আপনি একটি চুড়ান্ত সিধান্ত নেবেন ।

ঠিক তেমনি গুগলও কি করে জানেন , গুগল দেখে আপনার ওয়েব সাইট সমন্ধে কে কি বলতেছে । যদি দেখে আপনার নিদিষ্ট কন্টেন্ট এর লিংক বিভিন্ন জায়গায় রেফারেন্স হিসেবে বা যে কোন জায়গায়  পজিটিভ ভাবে ইউজ হচ্ছে তখন গুগল একটি গ্রিন সিগন্যাল পায় এবং আপনার কন্টেন্টের বিষয়ে একটি পজিটিভ সিধান্ধ নেয় । আর এটাই হলো অফপেজ এসইও ।

এই যে আপনি মেয়ের বাড়ি ঘর দেখেলেন , এরপর মেয়ে দেখলেন এরপর মেয়ের সমন্ধে আশে পাশে খোজ খবর নিলেন । সবকিছু যখন ভালো পেলেন তখনই কিন্তু আপনি বিয়ের সিধান্ত নেবেন ।

ঠিক তেমনি গুগল একটি ওয়েব সাইটের টেকনিক্যাল এসইও অন পেজ এসইও , অফ পেজ এসইও এসব কিছু যখন ঠিকঠাক মত পায় তখন সেই সাইটকে গুগল Rank দেয় । আশাকরি বোঝাতে পেরেছি ।

 Seo শিখে অনলাইনে আয় করার উপায়

এতক্ষনে তো বুঝেছেন এসইও কি জিনিস তাই না ? যদি না বুঝে থাকেন , তবে পোষ্টটি আবার পড়েন বার বার পড়েন । এরপরও না বুঝলে কমেন্টে জানান । চেষ্টা করবো আরো সহজ করে বুঝিয়ে দেবার ।

তো যাইহোক এখন হয়তো সবার মনে প্রশ্ন এসইও তো বুঝলাম কিন্তু এসইও করে কিভাবে আয় করবো ?

কোন টেনশন নাই আমি বলে দিচ্ছি কিভাবে আপনি এসইও শিখে আয় করতে পারেন।

এসইও শিখে আপনি বিভিন্নভাবে টাকা ইনকাম করতে পারবেন ঘরে বসে থেকেই ।

১. নিজের ব্লগে এসইও করে ভিজিটর এনে ইনকাম করতে পারেন ।

২। একটি এফিলিয়েট সাইট বানিয়ে সেটা এসইও করে বিপুল পরিমান টাকা ইনকাম করতে পারেন।

৩। দেশ বিদেশের বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে এসইও সার্ভিস সেল করে ইনকাম করতে পারেন একদম ঘরে বসেই ।

এই প্রতিটি বিষয় নিয়েই সামনে বিস্তারিত আলোচনা করবো ইনশাআল্লাহ ।

আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করছি । যদি কোন কিছু বুঝতে সমস্যা হয় তবে কমেন্ট করে জানাবেন । চেষ্টা করবো আপনাকে বুঝিয়ে দেবার । ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন বাংলা পরামর্শের সাথেই থাকুন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.