শিক্ষা

(স্টেপ বাই স্টেপ ) অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম ২০২১

অ্যাসাইনমেন্ট  লেখার নিয়ম

আসসালামুআলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ । প্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুরা আশাকরি সবাই ভালো আছেন ।

চারদিকে কররোন মহামারীর বিভৎষ তান্ডব । এই তান্ডব থেকে বাদ যায়নি কেউ । সকল শ্রেনী পেশার মানুষই এই ভাইরারেস প্রভাবে নাস্তানাবুদ ।

সেই ধারাবাহীকতায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তখা শিক্ষার্থীরাও বাদ যায়নি । হচ্ছে না ক্লাস , হচ্ছেনা পিরিক্ষা। থমকে দ্বারীয়েছে শিক্ষা ব্যাবস্থা ।

এভাবে চলছে ২ বছর হলো । আর কত বন্ধ থাকবে ? বিকল্প কিছুতো করতে হবে। টিকিয়ে রাখতে হবে শিক্ষা ব্যাবস্থা ।

সেই চিন্তা থেকেই আমাদের শিক্ষা কর্তারা একটি উপায় বের করেছে সেটা হলো এসাইনমেন্ট এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মেধার মুল্যায়ন করা ।

কিন্তু বিপত্তিটা ঘটেছে এইখানেই । স্কুলের শিক্ষার্থীরা এই এসা্‌নিমেন্ট তৈরীর কাজে আগে থেকেই অভ্যাস্থ নয় ।

তাই কিভাবে কি করবে বুঝে উঠিতেছেনা । আর তাইতো একটু হেল্প করার জন্য আমরা বাংলা  পরামর্শ টিম লিখতে বসেছি অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম ।

আজকে আমরা আলোচনা করবো এসাইনমেন্ট নিয়ে।  আমরা আজকে দেখবো কিভাবে এসাইনমেন্ট লিখতে হয় ।

অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়মঃ

তো অ্যাসাইনমেন্ট লিখতে হলে প্রথমেই আমারদের কিছু স্টেশনারী সামগ্রী লাগবে তা হলো

১। A4 সাইজের কাগজ । এখানে আমি আপনাদের একটা পরামর্শ দিয়ে থাকি তা হলো , যেহেতু এখন আপনাদের অনেক এসাইনমেন্ট লিখতে হবে । তাই কাগজ একটা দুইটা না কিনে পুরো রিল আকারে কিনে ফেলুন তাহলে টাকা কিছুটা বাচবে ।

২। একটি পেন্সিল । যেটা দিয়ে প্রয়োজনীয় চিত্র বা গ্রাফ আকাতে পারবেন ।

৩। বলপয়েন্টে কালো কালারের কলম । ভুলেও অন্য কালারের কলম ব্যাবহার করবেন না ।

৪। একটি স্কেল । যেটা দিয়ে পেজের চারপাশে মারজিন দিতে পারবেন ।

তো মোটামুটি এই চারটা জিনিস যোগার করার পর এবার আপনি মুল কজ তথা এসাইনমেন্ট লিখতে বসে যান ।

 

অ্যাসাইনমেন্ট কভার  পেজ ডিজাইনঃ

এখন আপনি আপনার অ্যাসাইনমেন্টের জন্য একটা কভার পেজ ডিজাইন করুন । এইখানে এখন আপনার মনে প্রশ্ন জেগেছে কিভাবে আমি কভার পেজ ডিজাইন করবো ।

নো টেনশন বাংলা পারামর্শ টিম তো আছেই । আমরা অপনাকে শিখিয়ে দেব কিভাবে এসাইনমেন্টের জন্য দৃষ্টিনন্দন একটি কভার পেজ ডিজাইন করবেন ।

আপনি যদি এস এস সি বা এইচ এস সি পরিক্ষার্থী হন।

তবে আপনার কোন টেনশন নাই শিক্ষাবোর্ড কতৃপক্ষ আপনার জন্য কভার পেজ ডিজাইন করেই রেখেছে ।

আপনি শুধু  সেটা ডাউনলোড করে বা কোথাও থেকে সংগ্রহ করে ব্যাবহার করুন ।

এসাইনমেন্ট কভার পেজ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন

আর আপনি যদি ৬ষ্ট শ্রেনী থেকে ৯ম শ্রেনীর কোন ছাত্র হন তবে আপনার একটু কষ্ট করে নিজ থেকে কভার পেজ ডিজাইন করে নিতে হবে।

তবে অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিজে থেকেই ডিজাইন করে ছাত্রছাত্রীদের কাছে সরবরাহ করছে।

এখনে আপনার যদি কপাল ভালো হয় তবে তো স্কুল থেকেই কভার পেজ পেয়ে গেলেন ।এভার লিখতে থাকুন ।

আর যদি নিজ থেকেই কভার পেজ ডিজাইন করতে হয় তবে মনোযোগ দিয়ে নিজের ইন্সট্রাকশন ফলো করুন ।

এসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম ২০২১

কভার পেজে যেসব তথ্য থাকবেঃ

১। শিক্ষার্থীর নাম

২। শিক্ষার্থীর রোল নাম্বার

৩। শ্রেনী

৪। বিষয়ের নাম

৫। মোবাইল নাম্বার

৬। শ্রেনী শিক্ষকের নাম ।

৭। জমাদানের শেষ তারিখ ।

সবচেয়ে ভালো হবে আপনি আপনার স্কুলে যোগযোগ করে এবিষেয় একটু ধারনা নিন ।

এসাইনমেন্ট নমুনা কভার পেজ ডিজাইনঃ

এসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম

আপনার যদি ধারনা নেওয়া শেষ হয় তবে আপনি এখন একটি কাগজে নিজ হাতে কভার পেজটা ডিজাইন করে ফেলুন ।

অথবা সবচেয়ে সহজ হয় কোন কম্পিউটার দোকানে গিয়ে একটি কভার পেজ ডিজাইন করিয়ে নিন।

এইচ এস সি অ্যাসাইনমেন্ট কভার পেজ ডিজাইনঃ

এখন আমরা দেখবো এইচ এস সি পরিক্ষার  এসাইনমেন্টের জন্য  কিভাবে কভার পেজ ফিলাম করবেন ।

এইচ এস সি এসাইনমেন্ট ২০২১

এতক্ষনে আপনার হাতে বোর্ড থেকে সরবারাহ করা এইচ এস সি এসাইনমেন্টের কভার পেজটা হাতে আছে ধরলাম ।

এখন আপনি লক্ষ করেন এই পেজে ৫ টি পার্ট আছে । একটি শিক্ষার্থীদের জন্য যেখানে শিক্ষার্থীরা তাদের প্রয়োজনীয় তথ্য পূরণ করবে

দ্বীতিয় পার্ট হলো যিনি আপনার এসাইনমেন্টটি পরিক্ষার করবেন বা দেখবেন তিনি পুরন করবেন ।

তৃতীয় পার্ট আপনার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পুরন করবে ।

এর পরের চতুর্থ পার্ট আপনি ইংরেজীতে পুরণ করবেন ।

এবং সর্বশেষ অংশটা পুরন করবে আপনার শিক্ষা বোর্ড।

 

অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়মঃ

কভার ডিজািইন করা বা কভার  পেজ ফিলাপ করা তো শেষ তাই না ? এখন চলুন আমরা ভিতরের পেজে যাই ।

এখন প্রথম কাজটা হলো পেজটার মার্জিন টানা। আপনার হাতে থাকে স্কেল দিয়ে সুন্দর করে পেনসিল দিয়ে মার্জিন টানুন ।

মার্জিন টানা শেষ হলে লেখা শুরু করুন ।

এখন আপনি প্রথমে যে অ্যাসাইনমেন্টটি লিখবেন সেটার নাম্বার দিন এবং নিচে প্রথমে “ক” শেষ করে ”খ” তারপর “গ” তারপর “ঘ” এভাবে ধারাবাহিকভাবে লিখুন

মনে রাখবেন কখনই পেজের দুইপারশ লিখবেন না । সব সময় পেজের একপাশে লিখবেন । কোন ধরনের কোন কাটাকাটি করবেন না।

সব সময় লেখা সচ্ছ ঝকঝকে চকচকে রাখার চেষ্টা করুন। কারন যার হাতের লেখা যত সুন্দর তার মার্ক তত বেশী হবে ।

কখনই অ্যাসাইনমেন্ট লেখার সময় কালো বল পয়েন্ট কলম ছাড়া পেন্সিল বা অন্য কালারের কালী ব্যাবহার করবেন না ।

এবার লেখা তো শেষ তাই না ? এখন পুরো লেখাটা একবার বা দুইবার রিভিশিন দেন দেখেন যে কোন ধরনের কোন ভুল আছে কিন।

যদি কোন ভুল পান তবে সেটা কারেকশন করুন ।

এখন সব কিছু যদি ঠিকঠাক থাকে তবে আপনার পুরন করা কভার পেজটার সাথে আপনার লেখা অ্যাসেইনমেন্ট এর উত্তরপত্র পিনআপ করে আপনার স্কুলে জমা দিন ।

ব্যাস হয়ে গেলো আপনার অ্যাসাইনমেন্ট । কি খৃুব সহজ বিষয়না ? এর পরেও যদি কোন কিছু না বুঝে থাকেন তবে আপনি কমেন্ট করে জানান ।

আপনার না বোঝা বিষয়টি বিস্তারিত লিখে আমাদেরকে কমেন্ট করেন । আমরা চেষ্টা করবো আপনাকে বিষয়টি ক্লিয়ার করার জন্য।

এরপরও যদি না বোঝেন তবে এই ভিডিওটি দেখতে পারেন।

অ্যাসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.